মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
শিরোনাম: খান আতার প্রয়াণ দিবস আজ       অন্তঃসত্ত্বা আনুশকাকে যোগব্যায়াম করাচ্ছেন কোহলি       কুমিল্লার জালে বসুন্ধরা কিংস মেয়েদের ১৫ গোলের উৎসব       ৯তলা থেকে ঝাপ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর!       মহান বিজয়ের মাস শুরু       ক্রোয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী প্লানকভিচ করোনায় আক্রান্ত       ট্রাম্পের বিতর্কিত করোনাভাইরাস উপদেষ্টার পদত্যাগ      
বিশ্ব খাদ্য দিবস
খাদ্যে ট্রান্সফ্যাট হৃদরোগজনিত মৃত্যুঝুঁকি
মো. হাসান শাহরিয়ার
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২০, ৮:১৩ পিএম |

আগামীকাল শুক্রবার ১৬ অক্টোবর ২০২০ বিশ্ব খাদ্য দিবস। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য, “সবাইকে নিয়ে একসাথে বিকশিত হোন, শরীরের যতœ নিন, সুস্থ থাকুন। আমাদের কর্মই আমাদের ভবিষ্যৎ”। খাদ্যে শিল্পোৎপাদিত ট্রান্সফ্যাট হৃদরোগ ঝুঁকি বৃদ্ধির অন্যতম কারণ। ট্রান্সফ্যাট গ্রহণের কারণে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে প্রতিবছর প্রায় ২ লক্ষ ৫০ হাজার মানুষ মৃত্যুবরণ করে। আশংকার কথা হলো ট্রান্সফ্যাটঘটিত হৃদরোগে মৃত্যুর সর্বাধিক ঝুঁকিপূর্ণ ১৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
খাদ্যে ট্রান্সফ্যাটের প্রধান উৎস পারশিয়ালি হাইড্রোজেনেটেড অয়েল বা পিএইচও, যা বাংলাদেশে ডালডা বা বন¯পতি ঘি নামে পরিচিত। পিএইচও বা ডালডা সাধারণত ভাজা পোড়া ¯œ্যাক্স ও বেকারিপণ্য তৈরি এবং হোটেল-রেস্তোরাঁ ও সড়কসংলগ্ন দোকানে খাবার তৈরিতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। সম্প্রতি এক গবেষণায় ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইন্সটিটিউট ঢাকার পিএইচও নমুনার ৯২ শতাংশে ডব্লিউএইচও সুপারিশকৃত ২% মাত্রার চেয়ে বেশি ট্রান্স ফ্যাট (ট্রান্স ফ্যাটি এসিড) পেয়েছে। প্রতি ১০০ গ্রাম পিএইচও নমুনায় সর্বোচ্চ ২০.৯ গ্রাম পর্যন্ত ট্রান্স ফ্যাট এর উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে, যা ডব্লিউএইচও’র সুপারিশকৃত মাত্রার তুলনায় ১০ গুণেরও বেশি। ট্রান্সফ্যাটের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কোনো আইন বা নীতি হয়নি। তবে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ (বিএফএসএ) অতিসম্প্রতি সকল ফ্যাট, তেল এবং খাদ্যে ট্রান্সফ্যাটের সর্বোচ্চ সীমা মোট ফ্যাটের ২ শতাংশ নির্ধারণ করে নীতি প্রণয়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
বিশ্ব খাদ্য দিবস উপলক্ষ্যে এক প্রতিক্রিয়ায় গবেষণা ও অ্যাডভোকেসি প্রতিষ্ঠান প্রজ্ঞা’র (প্রগতির জন্য জ্ঞান) নির্বাহী পরিচালক এবিএম জুবায়ের বলেন, “বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যমতে বাংলাদেশে হৃদরোগজনিত মৃত্যুর ৪.৪১ শতাংশের জন্য দায়ি ট্রান্সফ্যাট। খাদ্যে ট্রান্সফ্যাটের সীমা নির্ধারণ করার মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ মানুষের জীবন বাঁচানো সম্ভব। তাই আমাদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় নীতি প্রণয়ন করতে হবে।”
ট্রান্সফ্যাটমুক্ত নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে অবিলম্বে ডব্লিউএইচও’র পরামর্শ অনুযায়ী সবধরনের ফ্যাট, তেল এবং খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্সফ্যাটের সর্বোচ্চ সীমা মোট ফ্যাটের ২ শতাংশ নির্ধারণ করে আইন প্রণয়ন এবং কার্যকর করার দাবি জানিয়েছে প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান)। এছাড়াও মোড়কজাত খাবারের পুষ্টিতথ্য তালিকায় ট্রান্সফ্যাটের সীমা উল্লেখ বাধ্যতামূলক করা, উপকরণ তালিকায় পিএইচও’র মাত্রা উল্লেখ বাধ্যতামূলক করা, ফ্রন্ট অব প্যাকেজ লেবেলস বাধ্যতামূলক করা যা খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্সফ্যাটের উপস্থিতি নির্দেশ করবে এবং “ট্রান্সফ্যাট-মুক্ত” বা “স্বল্পমাত্রার ট্রান্সফ্যাট” এজাতীয় স্বাস্থ্যবার্তা ব্যবহারে বিধিনিষেধ আরোপ করা হলে ট্রান্সফ্যাটমুক্ত খাদ্য সরবরাহ নিশ্চিত করা যাবে বলে মনে করে প্রজ্ঞা।


লেখক: টিমলিডার, ট্রান্স ফ্যাট প্রজেক্ট, প্রজ্ঞা






আরও খবর


সর্বশেষ সংবাদ
খান আতার প্রয়াণ দিবস আজ
অন্তঃসত্ত্বা আনুশকাকে যোগব্যায়াম করাচ্ছেন কোহলি
কুমিল্লার জালে বসুন্ধরা কিংস মেয়েদের ১৫ গোলের উৎসব
৯তলা থেকে ঝাপ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর!
মহান বিজয়ের মাস শুরু
ক্রোয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী প্লানকভিচ করোনায় আক্রান্ত
ট্রাম্পের বিতর্কিত করোনাভাইরাস উপদেষ্টার পদত্যাগ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
বাংলাদেশ কালচারাল রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন এর রজতজয়ন্তী অনুষ্ঠান
এইডস রোগীদের মানসম্পন্ন চিকিৎসা নিশ্চিত করার জন্য রাষ্ট্রপতির আহ্বান
বাকাসস চট্টগ্রাম নেতৃবৃন্দের তৃতীয় সপ্তাহের কর্মবিরতি পালন
দুই বীর মুক্তিযোদ্ধার স্মরণ সভা
দেশ হতে এইডস রোগ নির্মূল করার জন্য সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ : প্রধানমন্ত্রী
শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার চট্টগ্রামবাসীর অনন্য উপহার: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী
ভাস্কর্যকে মূর্তির সাথে তুলনা বিভ্রান্তি-উস্কানির অপচেষ্টা মাত্র : তথ্যমন্ত্রী
সম্পাদক : মোল্লা জালাল | প্রধান সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৪২/১-ক সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।  ফোন +৮৮ ০১৮১৯ ২৯৪৩২৩
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত এনএনবি.কম.বিডি
ই মেইল: [email protected], [email protected]