বৃহস্পতিবার ৪ মার্চ ২০২১ ২০ ফাল্গুন ১৪২৭
শিরোনাম: ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় করোনা নিয়ন্ত্রণে : প্রধানমন্ত্রী       দুদকের নতুন চেয়ারম্যান মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ        চট্টগ্রাম নগরীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইউসুফের ইন্তেকাল       এইচ টি ইমামের অবস্থা সংকটাপন্ন, সিএমএইচে ভর্তি       বিএনপি গণতন্ত্রের মুখোশের আড়ালে গণতন্ত্র হত্যা করে আসছে : সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের       চাকরি দেওয়ার কথা বলে ধর্ষণ       ইংলিশদের নতুন ব্যাটিং কোচ ট্রেসকোথিক      
অভিজিৎ হত্যায় ৫ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড
এনএনবি নিউজ
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৮:৫৮ পিএম |

ছয় বছর আগে বিজ্ঞান লেখক অভিজিৎ রায়কে কুপিয়ে হত্যার মামলায় সেনাবাহিনী থেকে চাকরিচ্যুত মেজর জিয়াউল হক ওরফে জিয়াসহ পাঁচ জঙ্গিকে মৃত্যুদণ্ড এবং উগ্রপন্থি ব্লগার শফিউর রহমান ফারাবীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।
মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান সাড়া ফেলা এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।
২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাতে স্ত্রী রাফিদা আহমেদ বন্যাকে নিয়ে বইমেলা থেকে ফেরার পথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির সামনে জঙ্গি হামলায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী অভিজিৎ রায়। চাপাতির আঘাতে আঙুল হারান তার স্ত্রী।
সেই ঘটনা পুরো বাংলাদেশকে নাড়িয়ে দেয়, আন্তর্জাতিক পর্যায়েও আলোড়ন সৃষ্টি করে।
১২টা ১০ মিনিটে বিচারক আদালতে আসেন। রায় পড়া শুরু করেন ১২টা ১২ মিনিটে। রায় পড়ার সময় মনোযোগ দিয়ে শুনছিলেন কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে থাকা ৪ জঙ্গি।
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলো, বরখাস্তকৃত মেজর সৈয়দ জিয়াউল হক জিয়া, আকরাম হোসেন ওরফে হাসিব ওরফে আবির ওরফে আদনান ওরফে আবদুল্লাহ, আবু সিদ্দিক সোহেল, মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন, আরাফাত রহমান সাজ্জাদ ওরফে শামস্।  মেজর জিয়া এবং আকরাম হোসেন পলাতক রয়েছেন। অপর চার আসামি কারাগারে আছেন।
এর আগে মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় কাশেমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে চার আসামিকে আদালতের হাজত খানায় আনা হয়। এর পর ১১ টা ৩০ মিনিটে তাদের আদালতে হাজির করে। দুপুর ১২ টায় বিচারক রায় পড়া শুরু করেন। পলাতক দুই আসামি ছাড়া বাকি চার আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে গত ৪ ফেব্রুয়ারি ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১৬ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেন। গত ২১ জানুয়ারি সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। মামলায় ৩৪ জন সাক্ষীর মধ্যে বিভিন্ন সময় ২৮ জন সাক্ষ্য দেন।
২০১৯ সালের ১ আগস্ট ৬ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান। ওই বছরের ১১ এপ্রিল ট্রাইব্যুনাল অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন।
২০১৯ সালের ২৮ অক্টোবর অভিজিতের বাবা অধ্যাপক অজয় রায়ের সাক্ষ্যগ্রহণের মধ্য দিয়ে এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। গত ২১ জানুয়ারি সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়।মামলায় ৩৪ জন সাক্ষীর মধ্যে বিভিন্ন সময় ২৮ জন সাক্ষ্য দেন।
২০১৫ সালে ২৭ ফেব্রুয়ারি অভিজিতের বাবা বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অজয় রায় শাহবাগ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।
প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসি এলাকায় সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে জখম করে। আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে ওইদিন রাত সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ২৭ ফেব্রুয়ারি অভিজিতের বাবা বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অজয় রায় শাহবাগ থানায় হত্যা মামলা করেন।

এনএনবি নিউজ/ ডিকে








সর্বশেষ সংবাদ
ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় করোনা নিয়ন্ত্রণে : প্রধানমন্ত্রী
দুদকের নতুন চেয়ারম্যান মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ
ঠাকুর মন্দিরে বার্ষিক মহোৎসব আগামীকাল শুরু
চসিক মেয়রের সাথে ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনারের সৌজন্য সাক্ষাৎ
চট্টগ্রাম নগরীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইউসুফের ইন্তেকাল
চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সম্পাদকের সাথে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের সৌজন্য সাক্ষাৎ
বেতন না দিয়ে মালিক উধাও চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে পদ্মা ওয়্যারস শ্রমিকদের বিক্ষোভ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
করোনার টিকা নিলেন চসিক মেয়র রেজাউল
চট্টগ্রামের চন্দনাইশে দু’টি অবৈধ ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিলো প্রশাসন
দক্ষ ও যোগ্য মানবসম্পদ উন্নয়নের মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশ অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে
চট্টগ্রাম নগরীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইউসুফের ইন্তেকাল
চসিক মেয়রের সাথে ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনারের সৌজন্য সাক্ষাৎ
ঠাকুর মন্দিরে বার্ষিক মহোৎসব আগামীকাল শুরু
বাংলাদেশের ক্রিকেটে শেষ হচ্ছে ভেট্টোরি অধ্যায়
সম্পাদক : মোল্লা জালাল | প্রধান সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৪২/১-ক সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।  ফোন +৮৮ ০১৮১৯ ২৯৪৩২৩
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত এনএনবি.কম.বিডি
ই মেইল: [email protected], [email protected]